admin
জুলাই ২৭, ২০২০
  • No Comments

    রাজারহাটে বাবা-মার সামনে থেকে কিশোরী মেয়েকে তুলে নিয়ে গিয়ে বেঁধে ধর্ষণ

    কুড়িগ্রামের রাজারহাটে বাবা-মার সামনে থেকে কিশোরী মেয়েকে তুলে নিয়ে গিয়ে  তিন দুর্বৃত্ত দল বেঁধে ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ সময় বাঁধা দেয়ায় কুপিয়ে ও পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করা হয়েছে বাবাকে।
    পুলিশ জানায়, রোববার মধ্যরাতে মুষুলধারে বৃষ্টির সময় মেয়েটির বাড়ির দরজা ভেঙে মুখোশ পরিহিত ৩ যুবক কক্ষে প্রবেশ করে। এসময় বিদ্যুৎ ছিল না। কিছু বুঝে উঠার আগেই ওই যুবকরা মেয়েটির বাবাকে ধারালো অস্ত্রাঘাতে ও পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। এক পর্যায়ে তিনি অজ্ঞান হয়ে পড়েন। এসময় মেয়েটির মা এগিয়ে আসলে তাকেও মারপিট করে খাটের সঙ্গে বেঁধে রাখা হয়। পরে ওই কক্ষের আলমারির দরজা খুলে নগদ ২ লাখ টাকা ও দুই ভরি স্বর্ণালংকার লুট করে মুখোশ পরা দুর্বৃত্তরা। লুট শেষে পাশের কক্ষের দরজা ভেঙে স্কুল পড়ুয়া তাদের মেয়েকে বাড়ির পাশের ইউক্লিপটাস বাগানে নিয়ে দল বেঁধে ধর্ষণ করে তারা পালিয়ে যায়।
    স্থানীয়রা জানায়, সোমবার সকালে এলাকাবাসী মেয়েটি ও তার বাবাকে গুরুতর আহতাবস্থায় উদ্ধার করে কুড়িগ্রাম সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করে। তাদের ধারণা, পৈশাচিক এ ঘটনার সঙ্গে এলাকারই লোকজন জড়িত রয়েছেন।
    এদিকে খবর পেয়ে সোমবার বিকেলে কুড়িগ্রামের পুলিশ সুপার মহিবুল ইসলাম খাঁন (বিপিএম),সহকারি পুলিশ সুপার উৎপল কুমার ও রাজারহাট থানার ওসি রাজু সরকার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ সময় ওসি রাজু সরকার জানান, এঘটনায় রাজারহাট থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।7