admin
ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০২১
  • No Comments

    বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান কে বাঁচাতে এগিয়ে আসার আহবান

     
    নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
    মৃত বীর মুক্তিযোদ্ধার একমাত্র সন্তান মোহাম্মদ আলী জুয়েল কে এগিয়ে আসার আহবান জানালেন মৃত বীর মুক্তিযোদ্ধার বিধবা স্ত্রী রোকেয়া বেগম।চট্টগ্রাম জেলার সন্দ্বীপ উপজেলার গাছুয়া ইউনিয়নে মোহাম্মদ আলী জুয়েলের বাড়ি।হামিদ দর্জির বাড়ির মৃত বীর মুক্তিযোদ্ধা মুস্তাফিজুর রহমানের ও রোকেয়া বেগমের একমাত্র সন্তান মোহাম্মদ আলী জুয়েল।
    উল্লেখ্য যে,গত ২৩শে জানুয়ারী হঠাৎ করে স্ট্রক করেন মোহাম্মদ আলী জুয়েল।সন্দ্বীপ গাছুয়া মেডিকেল নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে চট্টগ্রামে নিয়ে যেতে বলে।চট্টগ্রামের একটা প্রাইভেট ক্লিনিকে তার চিকিৎসা চলছে গত ২৩শে জানুয়ারী থেকে এখন পর্যন্ত।আরো ৫০/৬০দিন থাকতে হবে বলে দাবি করেন ডাক্তার।স্ট্রক করার পরে এক হাত ও এক পা এখনো অচল।সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় যে,মৃত বীর মুক্তিযোদ্ধা মুস্তাফিজুর রহমান ও রোকেয়া বেগমের একমাত্র সন্তান হাসপাতালে চিকিৎসা প্রায় বন্ধ হয়ে আছে টাকার অভাবে।
    দীর্ঘ ২৩ দিন ধরে মোহাম্মদ আলী জুয়েলের মামা চিকিৎসা খরচ চালিয়ে আসছেন।এই পর্যায়ে এসে তিনিও প্রায় ব্যর্থ হয়ে আছেন।এমতাবস্থায় মোহাম্মদ আলী জুয়েলের মা রোকেয়া বেগম দেশবাসীর কাছে দোয়া ও আর্থিক সহযোগিতা চেয়েছেন।
    রোকেয়া বেগম আরো বলেন আমার স্বামী একজন মুক্তিযোদ্ধা।বর্তমানে তিনি আমাদের মাঝে নেই।আমার একমাত্র সন্তান হাসপাতালে চিকিৎসার অভাবে পড়ে আছে তাই আমি দেশবাসীর কাছে দোয়া ও আর্থিক সাহায্য কামনা করছি।তাছাড়া আমাদের কোন ধন-সম্পদ অথবা জায়গা জমিও নেই যে বিক্রি করে একমাত্র সন্তানের চিকিৎসা চালিয়ে যেতে পারবো।
    এদিকে মোহাম্মদ আলী জুয়েলের সাথে কথা বলার চেষ্টা করে হলেও তিনি কথা বলতে পারছেন না।ইশারায় ছাড়া কথা বলতে পারছেন।ডাক্তারের সাথে কথা বলে জানা যায় আরো ৫০/৬০দিন থ্যারাপি চালিয়ে যেতে হবে।এখন দৈনিক ২০০০টাকা বিল আসে বলে জানা যায়।আসুন আমরা যার যার অবস্থান থেকে এই মুক্তিযোদ্ধার সন্তানকে সহযোগিতা করি ও তার পরিবারের পাশে দাঁড়ায়।
    #বিকাশ পারসোনাল নাম্বার-০১৬১৫-৫০৯১৪৭